সর্বশেষ সংবাদ
 স্ত্রীকে হত্যার অপরাধে দোষী সাব্যস্ত স্বামী গোপাল দাসকে শুক্রবার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও জরিমানার নির্দেশ দিল খোয়াই জেলার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা আদালত।

 স্ত্রীকে হত্যার অপরাধে দোষী সাব্যস্ত স্বামী গোপাল দাসকে শুক্রবার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও জরিমানার নির্দেশ দিল খোয়াই জেলার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা আদালত।


 স্ত্রীকে হত্যার অপরাধে দোষী সাব্যস্ত স্বামী গোপাল দাসকে শুক্রবার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও জরিমানার নির্দেশ দিল খোয়াই জেলার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা আদালত। এই হত্যাকাণ্ড ঘটনাটি ঘটেছিল ২০০১ সালে ১৫ই জুন, পূর্ব রামচন্দ্রঘাট এলাকায়। স্বামী গোপাল দাস তার স্ত্রী জয়ন্তী দাসকে বিয়ের ছয় মাস পর নিজের ঘরেই হত্যা করে বস্তা বন্দী করে রেখেছিল। 
ঘটনায় জয়ন্তী দাসের মা প্রতিভা দাস খোয়াই থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে  ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২/ ২০১ ধারায় মামলা গ্রহণ করা হয় এবং আদালতে চার্জ শিট পেশ করা হয়। মামলার তদন্তকারী অফিসার সাব ইন্সপেক্টর রুনু দে।  দীর্ঘ ১১ বছর পর পলাতক অভিযুক্ত গোপাল দাস ২৬ শে এপ্রিল লোকসভা নির্বাচনে ভোট দিতে পূর্ব রামচন্দ্রঘাট এলে  তাকে গ্রেফতার করে খোয়াই থানার পুলিশ।পরে আদালতে শুনানি চলাকালীন ১৩ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। শেষপর্যন্ত শুক্রবার খোয়াইয়ের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা আদালতের বিচারপতি মানবেন্দ্র দেববর্মা তার সাজা ঘোষণা করেন।সরকার পক্ষে এই মামলা পরিচালনা করেন আইনজীবী বিকাশ দেব।

পরবর্তী খবর