728 x 90

বিক্ষিপ্ত হিংসাত্মক ঘটনা বাদে রাজ্যে নির্বাচন নির্বিঘ্নে ভোটের হার ৮৫ শতাংশের কাছাকাছি

বিক্ষিপ্ত হিংসাত্মক ঘটনা বাদে রাজ্যে নির্বাচন নির্বিঘ্নে ভোটের হার ৮৫ শতাংশের কাছাকাছি

বিক্ষিপ্ত কিছু হিংসাত্মক বাদ দিয়ে ত্রিপুরাতে প্রথম পর্বে নির্বাচন নির্বিঘ্নে সম্পন্ন হয়েছে। ভোটের হার ৮০ শতাংশ ছাড়িয়ে যেতে পারে। যদিও বিগত লোকসভা নির্বাচনে ভোটের হার ছিল ৮৫ শতাংশ। আজ ভোটগ্রহণ পর্বে রাজ্যে উপস্থিত ছিলেন সিপিএমের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। আসার কথা ছিল, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। কিন্তু তিনি পশ্চিমবঙ্গে ভোট প্রচার নিয়ে ব্যস্ত থাকায় রাজ্যে আসতে পারেননি। মোবাইলেই তার বার্তা পাঠিয়েছেন। যদিও নির্বাচনকে ঘিরে ব্যাপক রিগিং ও কারচুপির অভিযোগ করেছেন সিপিএমের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। তিনি বলেছেন, নির্বাচন কমিশন তার কথা রাখেনি। রাজ্যের কোথাও ছিল না আধাসামরিক বাহিনী। ৪০০ উপর ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে এজেন্ট দিতে পারেনি সিপিএম। তিনি অভিযোগ করেছেন, বিজেপি কর্মীসমর্থকরা সর্বত্র ভীতির পরিবেশ সৃষ্টি করে রেখেছে। অবাধ ও ভয়মুক্ত পরিবেশ ছিল না রাজ্যে। যদিও এই অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী তথা প্রদেশ বিজেপি সভাপতি বিপ্লব কুমার দেব। রাজ্যে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট হয়েছে বলে তিনি দাবী করেছেন। বলেছেন, কোথাও কোন ধরনের হিংসাত্মক ঘটনার খবর নেই। সকাল ৭টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে মহিলাদের উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়। ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার, সমীর রঞ্জন বর্মণ সহ বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব ও রাজ্য মন্ত্রিসভার সদস্যরা। মুখ্যমন্ত্রী উদয়পুরে তার নিজের বাসভবন সংশ্লিষ্ট এলাকায় ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। বিরোধী দলনেতা মানিক সরকার ভোট দিয়েছেন শিশুবিহার স্কুলে। রাজ্য নির্বাচন দপ্তর সূত্রে জানানো হয়েছে প্রথম দিকে ভোটগ্রহণ ধীর গতিতে থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটের হার বাড়তে থাকে। বিকেল ৩টা নাগাদ ভোট প্রায় ৬০ শতাংশের উপর চলে যায়। যদিও ১২টার পরেই নির্বাচন দপ্তরের দ্বারস্থ হয়েছে সিপিএম। সিপিএমের প্রতিনিধিরা বিভিন্ন এলাকাতে রিগিং ও কারচুপির অভিযোগ তুলেছেন। একই ভাবে কংগ্রেসের পক্ষ থেকেও একই অভিযোগ করা হয়েছে। সিপিএম ও কংগ্রেস এক সুরে অধিকাংশ ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবী জানিয়েছেন। যদিও সুনির্দিষ্ট অভিযোগ এবং পর্যবেক্ষকদের রিপোর্ট পাওয়ার পরই এই ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে রাজ্য নির্বাচন দপ্তর সূত্রে জানানো হয়েছে।

Loading...
  • Link Shortener

  • http://headlinestripura.in/z/704

Leave a Comment