A TRI-Language Channel Bengali | kokborok | English

ভয়মুক্ত পরিবেশে ভোট দানের আহ্বান পুলিশ প্রধানের, আইন ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারি

ভয়মুক্ত পরিবেশে ভোট দানের আহ্বান পুলিশ প্রধানের, আইন ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারি

হেডলাইন্স ত্রিপুরা ওয়েব ডেস্কঃ দুটি লোকসভা আসনে ভোট গ্রহণকে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে আরক্ষা দপ্তরসম্পূর্ণ ভয়মুক্ত পরিবেশে নির্ভয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন ভোটাররা কোন অভিযোগ পেলে কিংবা  কেউ আইন ভাঙার চেষ্টা করলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে পুলিশ সার্বিক নিরাপত্তার জন্য ১৪২টি নাকা বসানো হয়েছে ভোটের দিনে নিরাপত্তার তদারকি দেখাশুনা করবেন পুলিশ সেক্টর অফিসারেরাসাংবাদিক সম্মেলনে এই তথ্য জানালেন পুলিশের মহানির্দেশক এ কে শুক্লাএখন পর্যন্ত ভোট সংক্রান্ত ৫৫টি ঘটনায় ৬০টি মামলায় ৪৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।  

রাত পোহালেই পশ্চিম ত্রিপুরা লোকসভা আসনে ভোট গ্রহণ। আর এই ভোট প্রক্রিয়াকে ঘিরে ইতিমধ্যে যাবতীয় প্রস্তুতি সেরে নিয়েছে রাজ্য আরক্ষা দপ্তর। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে ভোটের নিরাপত্তায় সর্বাত্মক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে আরক্ষা প্রশাসন। বিপুল পরিমাণ কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনীর ঘেরাটোপেই হতে চলেছে গণতন্ত্রের এই মহাযজ্ঞ। ভোটাররা যাতে নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে পারে – সেটাও আরক্ষা দপ্তরের কাছে একটা মস্ত বড় চ্যালেঞ্জ। তাই নিজেদের প্রস্তুতি সম্পর্কে ভোটারদের আশ্বস্ত করতে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হলেন রাজ্য পুলিশের প্রধান অখিল কুমার শুক্লা। বুধবার বেলা ১২টায় পুলিশ সদর কার্যালয়ের কনফারেন্স হলে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে ভোট নিরাপত্তা সম্পর্কিত বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য তুলে ধরেন ডিজিপি। তিনি জানিয়েছেন, দুটি লোকসভা আসনে ভোট নেওয়ার জন্য ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে আরক্ষা প্রশাসন। আরক্ষা দপ্তরের পক্ষ থেকে কঠোর থেকে কঠোরতম নিরাপত্তা গ্রহণ করা হয়েছে। ভোটাররা নির্ভয়ে এবং ভয়মুক্ত পরিবেশে তাদের মতাধিকার পেশ করতে পারবেন। সম্ভাব্য অনভিপ্রেত ঘটনা এড়াতে 142টি নাকা লাগানো হয়েছে। নিরাপত্তার তদারকিতে থাকবেন পুলিশ সেক্টর অফিসারেরা। এর পাশাপাশি পরিস্থিতি অনুসারে সঙ্গে সঙ্গে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। পুলিশ প্রধান এ কে শুক্লা, ভোটারদের কাছে অনুরোধ রেখেছেন কেউ যাতে কোন অবস্থায় ভয়ডর না রেখে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিয়ে আসেন।

ডিজিপি শুক্লা আরো হুঁশিয়ারি দিয়েছেন কেউ আইন ভাঙার চেষ্টা করলে কিংবা আইন হাতে নিলে অভিযোগ সাপেক্ষে পুলিশ সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেবে। এছাড়া কোন অভিযোগের জন্য ১০০ নম্বরের পাশাপাশি জানানো যাবে ১৫১০৩ টোল ফ্রি নম্বরে এছাড়া সর্বক্ষণের জন্য চালু থাকবে পুলিশ সদর কার্যালয়ের দুটি নম্বর – ০৩৮১-২৩১০১৭৭ এবং ৯৪৩৬৫৪৪৪০৭. রাজ্যবাসীর পরিষেবায় পুলিশ সবসময় নিয়োজিত থাকবে।

পুলিশ মহানির্দেশক অখিল কুমার শুক্লা আরো জানিয়েছেন, ভোট সংক্রান্ত এখন পর্যন্ত ৫৫টি ঘটনায় ৬০টি মামলা নেওয়া হয়েছে। এসকল মামলায় 44 জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আত্মসমর্পণ করেছে ৬ জন। এছাড়া ১২৯ জনকে নোটিশ ইস্যু করা হয়েছে। জামিন অযোগ্য ধারায় ১৫৭০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রত্যন্ত ও দূরবর্তী এলাকার ১২৫টি বুথে নিরাপত্তায় থাকবে কেন্দ্রীয় বাহিনী ও রাজ্য পুলিশ।

একটা কথাই এদিন পুলিশ প্রধানের কথাই উঠে আসে রাজ্য পুলিশ সুষ্ঠু ও অবাধে ভোট সম্পন্ন করতে বদ্ধপরিকর। আর অপরাধ এবং অপরাধীদের বিরুদ্ধে কোন প্রকার আপোস করবে না আরক্ষা দপ্তর। এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন এডিজি আইন শৃঙ্খলা রাজীব সিং, আইজি জি এস রাও এবং ডিআইজি অরিন্দম নাথ।

Loading...
  • Link Shortener

  • http://headlinestripura.in/z/703

Leave a Comment