728 x 90

সিপিএমকে হটাতে ত্রিপুরার মানুষ ভুল করেনি, বললেন প্রধানমন্ত্রী।

সিপিএমকে হটাতে ত্রিপুরার মানুষ ভুল করেনি, বললেন প্রধানমন্ত্রী।

ত্রিপুরা এসেও নাম না করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেসকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ত্রিপুরার উদয়পুরে নির্বাচনী সভায় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তৃণমূল কংগ্রেসকে ভোট দিয়ে পশ্চিমবঙ্গের জনগণ যে ভুল করেছে, ত্রিপুরার জনগণ সেই ভুল করেনি। সিপিএমকে হটানোর জন্য বিজেপির জন্য দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করেছেন। বিজেপির নেতৃত্বে ত্রিপুরায় সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কংগ্রেসের নির্বাচনী ইস্তেহারকেও কটাক্ষ করেছেন। বলেছেন প্রধানমন্ত্রী কংগ্রেসের নির্বাচনী ইস্তেহার দেশের মধ্যবিত্ত জনগনের উপর বড় আঘাত। নতুন নতুন করা রূপের ইঙ্গিত রয়েছে কংগ্রেসের ইস্তেহারে। তার অভিযোগ ত্রিপুরা কেরালায় বামপন্থীদের এক রূপ। আর দিল্লীতে আরেক রূপ। শ্রমিকদরদী কমিউনিস্ট নেতাদের এখন আর মাঠেঘাটে দেখা যায় না। এখন দেখা যায় টিভির পর্দায়। দেশে আদর্শচ্যুত কমিউনিস্ট নেতারা। নাম না করে রাহুল গান্ধীকেও কটাক্ষ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। বলেছেন দেশের মানুষ কংগ্রেসের শাসনে তিতিবিরক্ত হয়ে উঠেছিল। বিজেপি শাসনের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলিও তিনি তুলে ধরেন। বলেছেন, দেশের কৃষকদের একাউন্টে টাকা ঢোকানোর কথা। ত্রিপুরাতে দেড় লক্ষ কৃষকের একাউন্টে সরাসরি টাকা ঢুকবে বলেও জানিয়েছেন। তিনি কমিউনিস্টদের ও কংগ্রেসদের একহাত নিয়েছেন। দুই দলের নেতাদেরই সুবিধাবাদী বলে আখ্যায়িত করেন প্রধানমন্ত্রী।

     ত্রিপুরাতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পাঁচ বছরে মোট ছয় বার এসেছেন। ত্রিপুরার বিজেপি সরকারের কাজকর্মের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। বলেছেন, ত্রিপুরাতে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। উদয়পুরের ত্রিপুরেশ্বরী মাতার নামও তিনি একাধিকবার উল্লেখ করেছেন। জনসভায় বক্তব্য রাখেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব সহ বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। প্রায় ১ ঘন্টা দেড়িতে জনসভা শুরু হলেও টানা ২৪ মিনিট ভাষণ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। জনসভায় ছিল উপচে পড়া ভিড়। প্রধানমন্ত্রীর সফরকে ঘিরে রাজ্যজুড়ে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

Loading...
  • Link Shortener

  • http://headlinestripura.in/z/699

Leave a Comment