A TRI-Language Channel Bengali | kokborok | English

ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে পুড়লো এক পরিবারের বসতবাড়ি, অল্পেতে রক্ষা জনবহুল এলাকা

ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে পুড়লো এক পরিবারের বসতবাড়ি, অল্পেতে রক্ষা জনবহুল এলাকা

হেডলাইন্স ত্রিপুরা ওয়েব ডেস্কঃ দিনদুপুরে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ভস্মীভূত হলো এক পরিবারের বসতবাড়ি। অল্পেতে বড় ধরণের বিপর্যয় থেকে রক্ষা পেল জনবহুল এলাকা। দমকলের চারটি ইঞ্জিন একসঙ্গে টানা ঘণ্টা খানেকের প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। যদিও আগুনের গ্রাসে ভস্মীভূত হয়ে যায় বাড়ির প্রায় সমস্ত জিনিষপত্র। শনিবার চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি সংঘটিত হয়েছে খোদ রাজধানীর হারাধন সংঘ সংলগ্ন প্যালেস কম্পাউন্ড এলাকায়। ঘটনার সময়ে বাড়িতে কেউ ছিল না বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। 

           ফের রাজধানী শহরের জনবহুল এলাকায় বিধ্বংসী অগ্নিকান্ড। কদিন পরপরই শহরের বুকে অগ্নিকান্ডের মতো বিপর্যয় সংঘটিত হচ্ছে। মাত্র কয়েকদিন আগে ঝুলন্ত ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় পুড়েছিল এক পরিবারের বসতবাড়ি। এর পাশাপাশি আরো অন্যান্য অঘটন লেগে রয়েছে। এই অবস্থায় শনিবার ফের ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে জনমনে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। এবারের ঘটনাস্থল আগরতলার হারাধন সংঘ সংলগ্ন এলাকা। এই এলাকায় বাড়ি অর্ঘ্য নাগ নামে এক ব্যক্তির। এদিন সকালে আচমকা তাদের টিনের ছাউনির বাড়িতে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলতে দেখতে পায় স্থানীয়রা। সেসময় তাদের বাড়িতে কেউ ছিল না। সঙ্গে সঙ্গে পাড়া প্রতিবেশিদের পক্ষ থেকে ঘটনাটি জানানো হয় দমকল অফিসে। খবর পেয়ে স্থানীয় ক্লাবের সদস্যরাও ঘটনাস্থলে হাজির হয়। পাশাপাশি আগরতলা ফায়ার স্টেশন থেকে চারটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে হাজির হয়। কিন্তু গলি রাস্তা হওয়ার কারণে ঘটনাস্থল পর্যন্ত যেতে পারেনি দমকলের ইঞ্জিন। তাই রাজপথ থেকেই পাইপ টেনে ঘটনাস্থলে নিয়ে যেতে হয়। চারটি ইঞ্জিন থেকে দমকল কর্মীরা পাশের বিল্ডিং বাড়ির ছাদ থেকে সমানে জল ছিটিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। এভাবে টানা দীর্ঘ সময়ের প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়। যদিও অত্যধিক কালো ধোঁয়ায় ঘটনাস্থলে যেতে বেগ পেতে হয় দমকল কর্মীদের। স্থানীয়রা জানিয়েছেন প্রথমে আগুন দেখতে পেয়ে তারা সেখানে যান। কিন্তু বাড়িতে তালা থাকায় ভেতরে প্রবেশ করা যায়নি। যে কারণে জিনিষপত্রও রক্ষা করা সম্ভব হয়নি। প্রতিবেশী এক মহিলাও জানিয়েছেন একই কথা। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঘটনার সময়ে বাড়ির গৃহকর্তা অর্ঘ্য নাগ এবং তার স্ত্রী কাজে বেরিয়ে গিয়েছিলেন। তাদের মেয়েও স্কুলে ছিল। দমকলের কর্মীরা অগ্নিকান্ডের প্রাথমিক তদন্ত করছেন। আগুনে একেবারে ভস্মীভূত হয়ে যায় বাড়ির সমস্ত জিনিষপত্র। অল্পেতে রক্ষা পায় পাশের বাড়িঘর। তবে এলাকাবাসী সূত্রে খবর, বাড়ির গৃহকর্ত্রী পুজো দিয়ে বেরোনোর সময়ে মোম কিংবা ধূপকাঠি জ্বালিয়ে গিয়েছিলেন। যেখান থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। পরবর্তীতে সেই আগুনে ফেটে যায় বাড়িতে থাকা গ্যাসের সিলিন্ডারও। যার দরুন আগুনের তীব্রতা ছড়িয়ে যায়। তবে দমকল কর্মীদের তৎপরতায় বড় ধরণের অঘটন এড়ানো সম্ভব হয়েছে বলেও মনে করা হচ্ছে।

Loading...
  • Link Shortener

  • http://headlinestripura.in/z/696

Leave a Comment