A TRI-Language Channel Bengali | kokborok | English

মহিলাকে পাশবিক অত্যাচারে বাঁধা, ধারালো অস্ত্রের আঘাতে খুন ৩ জন, গ্রেপ্তার অভিযুক্ত যুবক

মহিলাকে পাশবিক অত্যাচারে বাঁধা, ধারালো অস্ত্রের আঘাতে খুন ৩ জন, গ্রেপ্তার অভিযুক্ত যুবক

হেডলাইন্স ত্রিপুরা ওয়েব ডেস্কঃ মহিলাকে ধর্ষণের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে ৩ জনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে নৃশংস খুনঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ মুল অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি সংঘটিত হয়েছে ধলাই জেলার লংতরাই ভ্যালি মহকুমার মানিকপুর থানাধীন পুইসারাম কারবারী এলাকায়। বর্ষবরণের রাতে সংঘটিত এই ঘটনাকে ঘিরে জনমনে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে। জানা গেছে, বিজু উৎসব থেকে প্রচন্ড নেশাগ্রস্ত অবস্থায় গভীর রাতে বাড়ি ফিরছিল লক্ষ্মীময় চাকমা নামে ১৯ বছরের এক যুবক। অভিযোগ সেসময় এলাকারই এক মহিলাকে পাশবিক অত্যাচারের চেষ্টা চালায় লক্ষ্মীময়মহিলার সাথে ধস্তাধস্তি করার সময়ে চিৎকার শুনে সেখানে হাজির হয় আরো কয়েকজন। তারাই অভিযুক্তের কুকর্মে বাঁধা দেয়। এতে নেশার ঘোরে উত্তেজিত হয়ে উঠে সে। এরপর বাড়ি থেকে ধারালো কুড়াল নিয়ে আসে লক্ষ্মীময়। আর সেই ধারালো অস্ত্র দিয়ে সে একের পর এক এলোপাথারি কোপ মারতে থাকে। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন সুবল কান্তি চাকমা, কিনাচান চাকমা ও হেনাবতী ত্রিপুরা। কুড়ালের কোপে মারাত্মক জখম হয় প্রেমলতা চাকমা নামে আরো একজন। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হয় মানিকপুর থানার পুলিশ। আহত নিহতদের স্থানীয় মানুষের সহায়তায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পুলিশ অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ভারতীয় দন্ডবিধির ৪৫৯/৩২৬/৩০২/৩৪ ধারায় মামলা নিয়ে তদন্ত শুরু করে এবং মুল অভিযুক্ত লক্ষ্মীময়কে গ্রেপ্তার করে। তবে স্থানীয় সূত্রে আরো খবর, অভিযুক্তের সাথে আরো কয়েকজন জড়িত থাকতে পারে। সবদিক বিচার বিবেচনা করে তদন্ত জারি রেখেছে পুলিশ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়েছেন ধলাই জেলার পুলিশ সুপার সহ শীর্ষ স্তরের আধিকারিকরা। ঘটনার পরপর অভিযুক্তদের কঠোর এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন এলাকার জনসাধারণ। গোটা পরিস্থিতির উপর নজর রেখে চলেছে পুলিশ। পূর্ব ত্রিপুরা লোকসভা ভোটের মুখে এই হত্যাকান্ডের ঘটনায় আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়েও ব্যাপক প্রশ্ন উঠে পড়েছে জনমনে।

  • Link Shortener

  • http://headlinestripura.in/z/710

Leave a Comment